রৌমারীতে স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা চেষ্টা থানায় অভিযোগ

বিশেষ প্রতিবেদন
রৌমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ
১২:২৪:৫৯পিএম, ১৫ মে, ২০২২

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বন্দবের ইউনিয়নের দক্ষিণ বাগুয়ার চর গ্রামে যৌতুকের দাবিতে সাথী আক্তার (১৯) নামের এক গৃহবধূকে  পিটিয়ে আহত করেছে স্বামী সেলিম রেজা । 

পরে সাথী আক্তার বাদি হয়ে রৌমারী থানায়   
এসে একটি অভিযোগ করেন।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ ডিসেম্বর ২০২১ইং তারিখে বন্দবের ইউনিয়নের দক্ষিণ বাগুয়ার  চর গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে সেলিম রেজা (২৬)এর সাথে একই উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের চর গয়টাপাড়া  গ্রামের মো. আমির হামজার  মেয়ে মোছাঃ সাথী আক্তার এর বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই  যৌতুকের দাবিতে সাথীর ওপর সেলিমের অত্যাচার-নির্যাতন শুরু হয়। পরে সাথী আক্তার এর বাবা মা মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে বিভিন্ন আসবার পত্র ট্রাং,সুকেজ,আলমারী, লেপ তোষক, আরও
 অন্য,অন্য জিনিসপত্র  প্রদান করেন। কিন্তু তার স্বামীর  দাবী আরও একটা মোটরসাইকেল, সাথীর পরিবার থেকে মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় সেলিম রেজা  ও তার পরিবারের লোকজন সাথীকে মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার অব্যাহত রাখে।

 শনিবার (১৪ মে ২০২২ ইং) সকালে  পুনরায় সাথীকে  নির্যাতন করে আহত করে স্বামী সেলিম রেজা, শরিরের বিভিন্ন স্থানে কিল জখম,এবং গলা টিপে শাশরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টাকরে পরে সাথীর চিৎকারে  আশপাশের লোক জন চলে আসে, পরে তাকে বাড়ি থেকে তারিয়ে দেয়। প্রতিবেশীর এক বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয় সাথী। প্রতিবেশীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে তার চাচা সাথী আক্তারকে  উদ্ধার করে রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে যান। 

আহত গৃহবধূ  সাথী আক্তার বলেন,আমার কাছে একটি মোটরসাইকেল দাবি করেন আমার স্বামী সেলিম রেজা,শনিবার সকালে আমাকে গলাটিপে হত্যার চেষ্টা করে  এবং কারনে অকারনে প্রায় আমাকে ধরে মার ধর করে আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

 এবিষয়ে রৌমারী  থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।