দৃষ্টিনন্দন সেই মসজিদের উদ্বোধনী দিনে ১০ হাজার মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়

দেশজুড়ে
রফিক মোল্লা।
০৬:২৪:৪৫পিএম, ২ এপ্রিল, ২০২১

আজ শুক্রবার জুমার নামাজের মধ্য দিয়ে উদ্বোধন হল দৃষ্টি নন্দন 'আল- আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ'।

প্রায় ১০ হাজার মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়ে ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন এই মসজিদটি। আজ শুক্রবার বেলা পৌনে ২টার দিকে সিরাজগঞ্জ-এনায়েতপুর সড়কের বেলকুচি পৌর সদরের ‘আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদ’ নামে নির্মিত মসজিদে জুমার নামাজ শুরু হয়।

ঢাকা সার্কিট হাউস জামে মসজিদের খতিব ড. আরিফ উদ্দিন মারুফ এতে ইমামতি করেন।

এর আগে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী কোরআন হাদিস থেকে আলোচনা করেন দেশবরেণ্য ওলামায়ে কেরামরা। নামাজ শেষে মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত মোহাম্মদ আলী সরকারের আত্মার শান্তি এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মমিন মণ্ডল প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

জুমার নামাজে উপস্থিত ছিলেন- জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, একটি গ্রুপ ও ব্যাংকের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই সরকার, একটি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ আব্দুস ছালাম, প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত মোহাম্মদ আলী সরকারের দুই ছেলে আমান উল্লাহ সরকার ও আমির হামজা সরকার, দুই ভাই শিল্পপতি আলতাব হোসেন সরকার ও আক্তার হোসেন সরকার, বেলকুচি উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সাজেদুল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনিসুর রহমান, পৌর মেয়র সাজ্জাদুল হক রেজা, উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মওদুদ আহম্মেদ ও বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফাসহ বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা বিপুলসংখ্যক ওলামায়ে কেরাম।

প্রসঙ্গত, সিরাজগঞ্জ শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে বেলকুচি পৌর এলাকার মুকন্দগাঁতী মহল্লায় সিরাজগঞ্জ-এনায়েতপুর সড়কের পশ্চিম পাশেই আড়াই বিঘা জমির ওপর নির্মিত হয়েছে আল-আমান বাহেলা খাতুন জামে মসজিদটি। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে এ মসজিদ নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন বিশিষ্ট শিল্পপতি মোহাম্মদ আলী সরকার।

গত বছরের আগস্ট মাসে শিল্পপতি মোহাম্মদ আলী সরকারের মৃত্যু হয়। পরে তার ছেলে আমানউল্লাহ সরকার মসজিদটির কাজ এগিয়ে নেন। সাড়ে চার বছর ধরে প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ মসজিদটির নির্মাণশৈলী ইতোমধ্যে হাজারও মানুষের দৃষ্টি কেড়েছে।