অবিশ্বাস্য রকম হ্যাটট্রিকের দুয়ারে বাংলাদেশ

খেলাধুলা
খেলাধুলা ডেস্ক।
০৯:৩১:৫৮এএম, ২২ জানুয়ারী, ২০২১

বাংলাদেশ দল দ্বিপাক্ষিক সিরিজে নাম লেখানোর পর পাঁচ বছরে (১৯৯৯-২০০৪) টানা ১৫ সিরিজ হেরেছিল। ওয়ানডেতে প্রথম সিরিজ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল টাইগাররা ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে। তারপর গত ১৫ বছরে বাংলাদেশের অর্জনের তালিকায় যুক্ত হয়েছে ২৫টি সিরিজ জয়ের সাফল্য। ওয়ানডে ফরম্যাটে ২৬তম সিরিজ জয়ের হাতছানি এখন বাংলাদেশের সামনে। আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতে পারলেই চলমান তিন ম্যাচের সিরিজটা ২-০ তে জিতে যাবে বাংলাদেশ।

তাতেই ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে আজ অন্যরকম হ্যাটট্রিক পূর্ণ করবে লাল-সবুজের দল। ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই সর্বোচ্চ টানা ছয়টি সিরিজ (২০০৬-২০১০) জিতেছিল বাংলাদেশ। উইন্ডিজদের বিরুদ্ধে শেষ দুটি সিরিজই (২০১৮ সালে) জিতেছে টাইগাররা। আজ সুযোগ টানা তৃতীয় সিরিজ জয়ের তথা হ্যাটট্রিক পূর্ণ করার। জিম্বাবুয়ে ছাড়া আর কোনো দলের বিরুদ্ধে টানা তিন সিরিজ জয়ের রেকর্ড নেই বাংলাদেশের।

গত বুধবার অনায়াস জয়ে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। আজ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে তামিম বাহিনী। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু হবে সকাল সাড়ে ১১টায়।

প্রায় ১০ মাস পর ফিরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ভালো শুরু পেয়েছে বাংলাদেশ। সিরিজ জয়ের মিশনে নামার আগে গতকাল বিশ্রামে ছিলেন বেশির ভাগ ক্রিকেটার। ঐচ্ছিক হলেও অনুশীলনে এসেছিলেন তামিম, সাকিব, মুশফিকের মতো সিনিয়র ক্রিকেটাররা। গতকাল বিসিবি সূত্র জানিয়েছে, আজ দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের একাদশে পরিবর্তনের সম্ভাবনা কম। উইনিং কম্বিনেশন ধরে রেখেই নামার কথা টাইগারদের।

তাই প্রতিপক্ষ কিছুটা দুর্বল হলেও আজই পরীক্ষা-নিরীক্ষার পথে হয়তো হাঁটছে না বাংলাদেশ। সিরিজ জয় নিশ্চিত করাই স্বাগতিকদের প্রথম টার্গেট। তাছাড়া আইসিসির ওডিআই সুপার লিগের ম্যাচ বলে ঘরের মাঠে শতভাগ জয়ের সুযোগ হাতছাড়া করতে চায় না বাংলাদেশ।

এদিকে গতকাল অনুশীলনই করেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। আগের দিন ৬ উইকেটে হারা দলটার ক্রিকেটাররা বিশ্রামে ছিলেন। তবে সিরিজে ঘুরে দাঁড়াতে মুখিয়ে আছে ক্যারিবিয়ানরা। গতকাল সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে দলটির ফাস্ট বোলার আলজারি জোসেফ বলেছেন, প্রথম ম্যাচটা ভালো কাটেনি আমাদের। প্রথম ম্যাচের ভুল শুধরে ঘুরে দাঁড়াতে আত্মবিশ্বাসী গোটা দল। কন্ডিশনে মানিয়ে নিয়ে ব্যাটিংয়ে, বোলিংয়ে নিজেদের সেরা মেলে ধরতে প্রস্তুত উইন্ডিজরা।