মাদক ব্যবসায়ীরা আত্মসমর্পণ করেন- আমি কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিব গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

ডেস্ক এডিটরডেস্ক এডিটর
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৫৯ PM, ১৭ অক্টোবর ২০২০

বেলাল রৌমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধি:

‘যারা পেটের দু:খে মাদক ব্যবসায় জড়িত তারা যদি করে আত্মসমার্পণ করে আমার কাছে এসে বলেন, ভাই আমি পেটের দু:খে এটা করি,আর করবো না। আমি তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিবো।’ মাদক ব্যবসা থেকে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘কোনো একটা কাজ করে হলেও এই পথ থেকে ফিরে আসেন। এটা আপনার বদনামের সাথে এলাকারও বদনাম হয়, আমারও বদনাম হয়। আমরা আপনাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে চাই আপনারা আমাদেরকে উজ্জত দেন।নিজের ইজ্জত রক্ষার পাশাপাশি এ বদনাম থেকে এলাকাকে রক্ষা করতে হবে।’
শুক্রবার রাত ৮টার দিকে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সীমান্ত এলাকার (বাংলাদেশ-ভারত) উত্তর আলগারচর নামক এলাকায় রৌমারী উপজেলা মাদকদ্রব্য নির্মূল সংগ্রাম কমিটি কৃর্তক আয়োজিত প্রচারণা, জনসচেতনতা ও অবহিতকরণ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী সীমান্ত এলাকার মানুষের অভাব ও দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে বলেন, আমি লক্ষ করেছি আমাদের এই বর্ডার বেল্টের লোকগুলোর কিছুটা অভাব আছে।কর্ম নাই,জমিতে ধান থাকে না ইত্যাদি ইত্যাদি কারণে অভাব আছে। আর অভাবের কারণে মানুষের স্বভাব নষ্ট হয়।
বর্ডার এলাকার উন্নয়নে অনেক কিছু করা হবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, বর্ডার এলাকার মানুষের জীবন মান বাড়াতে সব ধরণের সহায়তা করা হবে। তবে মাদক ব্যবসা ছাড়ার ওয়াদা দিতে হবে। আমার যেনো বদনাম না হয় সেদিকটা আপনাদের দেখতে হবে। এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো করতে ব্রিজ-কালভার্ট,সড়ক নির্মাণ করা হবে। এতে আমার এলাকার বেকার যুবকরা ভ্যান চালিয়ে, সিএনজি চালিয়ে উপার্জন করতে পারবে,ভালোভাবে চলতে পারবে।
রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরানের সভাপতিত্বে সন্ধা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলে এ মাদক বিরোধী সভা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল্লাহ, সহকারী পুলিশ সুপার(রৌমারী সার্কেল) এএইচএম মাহফুজুর রহমান,এনএসআইয়ের রৌমারী অফিসের সহকারী পরিচালক মহসিনুজ্জামান, রৌমারী থানার ওসি আবু মো. দিলওয়ার হাসান ইনাম,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মিনু প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :