করোনা টেস্ট কেলেংকারী সহ স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতি উদঘাটনে উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠনের দাবি জিএম কাদেরের

ডেস্ক এডিটরডেস্ক এডিটর
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:১৫ PM, ১৭ জুলাই ২০২০

বাংলামেইল রিপোর্ট,
করোনার টেস্ট কেলেঙ্কারিসহ স্বাস্থ্য খাতের অনিয়ম-দুর্নীতি উদঘাটনে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যান জিএম কাদের। এইচএম এরশাদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বনানীতে দলের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে জাতীয় ছাত্রসমাজ আয়োজিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, যাতে কমিটির পরামর্শে দেশের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হয়।

জিএম কাদের বলেন, দেশে করোনা টেস্ট নিয়ে মারাত্মক কেলেঙ্কারি হয়েছে। এখন আর বিদেশে আমাদের দেশের করোনা টেস্টের রিপোর্ট গ্রহণ করা হয় না। করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্টের জন্য বিদেশে বাংলাদেশের সুনাম মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ণ হয়েছে। সুস্থ হয়েও দেশে আটকে পড়া প্রবাসীরা বিদেশে যেতে পারছেন না। ভুয়া টেস্ট করে যারা কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে, যারা অচল মেশিন সরবরাহ করে টাকা আত্মসাৎ করেছে তাদের উপযুক্ত বিচারের আওতায় আনতে হবে।

তিনি বলেন, অপরাধীরা গ্রেফতার হয়ে হাসপাতালে আরামে থাকে, আবার মাস পার হলেই জামিনে মুক্তি পেয়ে কোট-টাই পরে ঘুরে বেড়ায়। তাই অপরাধ প্রবণতা কমছে না। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা না হলে অপরাধ ও দুর্নীতি কমবে না।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, নভেম্বরে চীনে করোনার সংক্রমণ শুরু হয়, বলা হলো আমাদের সব প্রস্তুতি আছে। কিন্তু এখানে সংক্রমণ শনাক্ত হবার পরে দেখা গেল কোনো প্রস্তুতি নেই। কোনো সমন্বয় নেই। এখন স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা নিজেরাই স্বীকার করছে তাদের সমন্বয়হীনতার কথা। পর্যাপ্ত করোনা টেস্টের সুবিধা নেই এবং করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই- এমন হাসপাতালকেও করোনা টেস্টের অনুমতি দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

আসন্ন কোরবানির ঈদে দুস্থদের হক পশুর চামড়া যেন ন্যায্য মূল্যে বিক্রি হয় সেজন্য ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দেন জিএম কাদের। তিনি বলেন, এরশাদ ছাত্রদের লাঠিয়াল হিসেবে পরিণত করতে চাননি। অন্যরা ছাত্রদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে রাজনীতিকে কলুষিত করেছে। ছাত্রসমাজের সভাপতি ইব্রাহিম খাঁন জুয়েলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আল মামুনের সঞ্চালনায় স্মরণ সভায় জাপা মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাও বক্তব্য রাখেন।

আপনার মতামত লিখুন :